দৈনিক বরিশাল ২৪বেওয়ারিশ মানুষদের সেবায় হাসপাতাল চালুর জন্য প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা | দৈনিক বরিশাল ২৪

প্রকাশিতঃ জুন ১৩, ২০২০ ৩:২০ পূর্বাহ্ণ
A- A A+ Print

বেওয়ারিশ মানুষদের সেবায় হাসপাতাল চালুর জন্য প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা

সোহেল আহমেদ, চট্টগ্রাম থেকেঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মমতাময়ী মা আখ্যায়িত করে রাস্তায় পরে থাকা হতদরিদ্র, পঁচন ধরা অসহায় বেওয়ারিশ মানুষদের আলাদাভাবে চিকিতসা সেবা দেয়ার জন্য দেশে একটি বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণের জন্য আকুল আদেবন জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মানবিক ইউনিট এর টিমলীডার শওকত হোসেন।

বরিশাল থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল দৈনিক বরিশাল২৪.কম-এর মানবতার সেবায় এক শওকত হোসেন এর অব্যহত সাফল্যের গল্প শিরোনামে এক ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠানে জনাব শওকত তার কর্মজীবনের নানা অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে বেওয়ারিশ হাসপাতালের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আমরা সিএমপির মানবিক পুলিশ ইউনিট অসহায় বিপদগ্রস্থ মানুষদের চিকিতসা সেবা দিয়ে আসছি। এসব মানুষগুলোর অধিকাংশের সামান্য মাথা গোজার ঠাই পর্যন্ত নেই। ফলে বেওয়ারিশ মানুষগুলো অসুখ বিসুখ নিয়ে এভাবে রাস্তা পরে থেকে বৃষ্টিতে ভিজে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে।

শওকত হোসেন সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণের দাবী করে বলেন, সরকার যথেষ্ট আন্তরিক, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট চেষ্টা করছেন মানুষের জন্য কাজ করছেন। মানবতার সেবাগুলো প্রচারে আপনারা যারা ( যারা মিডিয়ায় কাজ করছেন) কাজ করছেন, তাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছি। আমি বিশ্বাস করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত আমার এ দাবী (বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণ) পৌছালে অবশই দেশে বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মিত হবে।

সাংবাদিক মনিরুজ্জামান এর উপস্থাপনায় লাইভ অনুষ্টানে হাসপাতালের নৈরাজ্য ঠেকানোর জন্য সরকার কি পদক্ষেপ নিতে পারেন বলে মনে করেন এমন এক প্রশ্নের উত্তরে মানবিক পুলিশ অফিসার শওকত হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আমি সেলুট ( হাত উঠিয়ে ) জানাই। মানবতার মা প্রধানমন্ত্রী চিকিতকদের মানবতার বিষয়ে অবগত করেছেন। তিনি বলেন, কতিপয় চিকিতসক ছাড়া অন্য সবাই ভালো সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

শওকত হোসেন বলেন, বর্তমান সময়ে গৃহিত পদক্ষেপ হটলাইনে এরা কল দিয়ে কথা বলতে পারে না ৷ কারন এদের নিকট মোবাইল নেই ৷ আর ঔষধই বা কে দিবে ৷ মনে রাখতে হবে এরা আক্রান্ত হলে কিন্তু আমাদেরও নিস্তার নেই ৷ ওদের (বেওয়ারিশ) অভিশাপে আমরা সুস্থ থাকতে পারবনা। তাই বিষয়টি যথাযথ গুরুত্বের সাথে স্বাস্থ্য রিলেটেড কতৃপক্ষের নজরে নিয়ে আসার জন্য সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানান সিএমপির গর্বিত  মানবিক পুলিশ ইউনিট এর টিম লিডার।

হাসপালগুলোতে কিছু চিকিতসকরা রোগীদের সাথে কুকুর বিড়ালের মত খারাপ আচরণ করছে। আমি যখন একজন অসহায় রোগীকে নিয়ে হাসপাতালে যাই তখন দেখি কিছু ডাক্তাররা কিরকম খারাপ আচরণ করছে।  হাসপালের অনেক ডাক্তার মায়ের সমতুল্য রোগীদের সাথে চরম দূর্ব্যাবহার করছে। এদের জন্য ভালো ডাক্তারদেরও সুনাম নষ্ট হচ্ছে। খারাপ আচরণকারী এইসব ডাক্তারদের মানবতার বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। মানবতা কি জিনিস সে বিষয়ে তাদেরকে শেখাতে হবে। কারণ মানবতা না জানলে ডাক্তারি করা যাবে না। ডাক্তারি করতে হলে আগে মানবিকতা থাকতে হবে।

পুলিশ বাহিনীর মত দেশের সেনা, নৌসহ সমস্ত প্রশাসনিক বাহিনীতে এরকম মানবিক ইউনিট চালু করার দাবী করেন সুপারম্যান খ্যাত শওকত হোসেন বলেন, আমি আমার পেশাগত দ্বায়িত্ব পালন এর সময় শেষে যখন নিজের রেষ্ট এর সময়টুকু আমি অসহায় বেওয়ারিশ মানুষের জন্য কাজ করছি। তিনি বলেন, আমি আমার মানবিকতার দান থেকে এ কাজটা করি। পুলিশে আমার যে কাজ তা আমি সুন্দর করে বুঝিয়ে দেই। যে সময়টা আমার পরিবারে ব্যায় করার কথা, যে সময়টা আমার পদোন্নতি পাবার জন্য পড়ার কথা ,সে সময়টা আমি মানবসেবায় খরচ করি। আমি  স্বপ্ন দেখি সুন্দর বাংলাদেশের।

পুলিশ বাহিনীতে কেনো চাকরি নিলেন এমন এক প্রশ্নে শওকত হোসেন বলেন, বাংলাদেশে মানুষের কাছা কাছি গিয়ে সেবা দেওয়া পথ একমাত্র পুলিশ বাহিনী। পুলিশ যে সেবা দেয় তা অন্য কোন বাহিনীতে আপনি সরাসরি পাবেন না উল্লেখ করে শওকত হোসেন বলেন, পুলিশ বিদেশেও অনেক প্রশংসনীয় কাজ করছে। সরকারি দ্বায়িত্ব পালন ছাড়াও পুলিশ মানুষের ঘরে গিয়ে খাবার পৌছে দিচ্ছে। মানুষের সেবায় পুলিশ কি না করছে এমন প্রশ্ন ছুড়ে দেন শওকত হোসেন।

সিএমপির কমিশনার জনাব মাহাবুবুর রহমানের মানুষের কল্যাণে নিরলস প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে শওকত হোসেন বলেন, মানবতার সেবায় তার বিভিন্ন নির্দেশনা আমাদের কাজে গতি বৃদ্ধি পাই।

শওকত হোসেন, মানবিক সহায়তায় সামান্য হলেও অসহায় দুস্ত মানুষের উপকার করতে সব শ্রেনী পেশার মানুষদের সাধ্যমত এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে বলেন, অন্তত একদিনের বেতন দিয়ে হলেও মানবতার সেবায় আসুন। এ সময় তিনি চলমান করোনা কালের নিরাপদে থাকার জন্য নিয়মিত স্বাস্থবিধি মেনে চলার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

বেওয়ারিশ মানুষদের সেবায় হাসপাতাল চালুর জন্য প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা

শনিবার, জুন ১৩, ২০২০ ৩:২০ পূর্বাহ্ণ | আপডেটঃ জুন ১৩, ২০২০ ৩:৪২ পূর্বাহ্ণ

সোহেল আহমেদ, চট্টগ্রাম থেকেঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মমতাময়ী মা আখ্যায়িত করে রাস্তায় পরে থাকা হতদরিদ্র, পঁচন ধরা অসহায় বেওয়ারিশ মানুষদের আলাদাভাবে চিকিতসা সেবা দেয়ার জন্য দেশে একটি বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণের জন্য আকুল আদেবন জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মানবিক ইউনিট এর টিমলীডার শওকত হোসেন।

বরিশাল থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল দৈনিক বরিশাল২৪.কম-এর মানবতার সেবায় এক শওকত হোসেন এর অব্যহত সাফল্যের গল্প শিরোনামে এক ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠানে জনাব শওকত তার কর্মজীবনের নানা অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে বেওয়ারিশ হাসপাতালের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আমরা সিএমপির মানবিক পুলিশ ইউনিট অসহায় বিপদগ্রস্থ মানুষদের চিকিতসা সেবা দিয়ে আসছি। এসব মানুষগুলোর অধিকাংশের সামান্য মাথা গোজার ঠাই পর্যন্ত নেই। ফলে বেওয়ারিশ মানুষগুলো অসুখ বিসুখ নিয়ে এভাবে রাস্তা পরে থেকে বৃষ্টিতে ভিজে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে।

শওকত হোসেন সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণের দাবী করে বলেন, সরকার যথেষ্ট আন্তরিক, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট চেষ্টা করছেন মানুষের জন্য কাজ করছেন। মানবতার সেবাগুলো প্রচারে আপনারা যারা ( যারা মিডিয়ায় কাজ করছেন) কাজ করছেন, তাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছি। আমি বিশ্বাস করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত আমার এ দাবী (বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মাণ) পৌছালে অবশই দেশে বেওয়ারিশ হাসপাতাল নির্মিত হবে।

সাংবাদিক মনিরুজ্জামান এর উপস্থাপনায় লাইভ অনুষ্টানে হাসপাতালের নৈরাজ্য ঠেকানোর জন্য সরকার কি পদক্ষেপ নিতে পারেন বলে মনে করেন এমন এক প্রশ্নের উত্তরে মানবিক পুলিশ অফিসার শওকত হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আমি সেলুট ( হাত উঠিয়ে ) জানাই। মানবতার মা প্রধানমন্ত্রী চিকিতকদের মানবতার বিষয়ে অবগত করেছেন। তিনি বলেন, কতিপয় চিকিতসক ছাড়া অন্য সবাই ভালো সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

শওকত হোসেন বলেন, বর্তমান সময়ে গৃহিত পদক্ষেপ হটলাইনে এরা কল দিয়ে কথা বলতে পারে না ৷ কারন এদের নিকট মোবাইল নেই ৷ আর ঔষধই বা কে দিবে ৷ মনে রাখতে হবে এরা আক্রান্ত হলে কিন্তু আমাদেরও নিস্তার নেই ৷ ওদের (বেওয়ারিশ) অভিশাপে আমরা সুস্থ থাকতে পারবনা। তাই বিষয়টি যথাযথ গুরুত্বের সাথে স্বাস্থ্য রিলেটেড কতৃপক্ষের নজরে নিয়ে আসার জন্য সবাইকে বিনীত অনুরোধ জানান সিএমপির গর্বিত  মানবিক পুলিশ ইউনিট এর টিম লিডার।

হাসপালগুলোতে কিছু চিকিতসকরা রোগীদের সাথে কুকুর বিড়ালের মত খারাপ আচরণ করছে। আমি যখন একজন অসহায় রোগীকে নিয়ে হাসপাতালে যাই তখন দেখি কিছু ডাক্তাররা কিরকম খারাপ আচরণ করছে।  হাসপালের অনেক ডাক্তার মায়ের সমতুল্য রোগীদের সাথে চরম দূর্ব্যাবহার করছে। এদের জন্য ভালো ডাক্তারদেরও সুনাম নষ্ট হচ্ছে। খারাপ আচরণকারী এইসব ডাক্তারদের মানবতার বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। মানবতা কি জিনিস সে বিষয়ে তাদেরকে শেখাতে হবে। কারণ মানবতা না জানলে ডাক্তারি করা যাবে না। ডাক্তারি করতে হলে আগে মানবিকতা থাকতে হবে।

পুলিশ বাহিনীর মত দেশের সেনা, নৌসহ সমস্ত প্রশাসনিক বাহিনীতে এরকম মানবিক ইউনিট চালু করার দাবী করেন সুপারম্যান খ্যাত শওকত হোসেন বলেন, আমি আমার পেশাগত দ্বায়িত্ব পালন এর সময় শেষে যখন নিজের রেষ্ট এর সময়টুকু আমি অসহায় বেওয়ারিশ মানুষের জন্য কাজ করছি। তিনি বলেন, আমি আমার মানবিকতার দান থেকে এ কাজটা করি। পুলিশে আমার যে কাজ তা আমি সুন্দর করে বুঝিয়ে দেই। যে সময়টা আমার পরিবারে ব্যায় করার কথা, যে সময়টা আমার পদোন্নতি পাবার জন্য পড়ার কথা ,সে সময়টা আমি মানবসেবায় খরচ করি। আমি  স্বপ্ন দেখি সুন্দর বাংলাদেশের।

পুলিশ বাহিনীতে কেনো চাকরি নিলেন এমন এক প্রশ্নে শওকত হোসেন বলেন, বাংলাদেশে মানুষের কাছা কাছি গিয়ে সেবা দেওয়া পথ একমাত্র পুলিশ বাহিনী। পুলিশ যে সেবা দেয় তা অন্য কোন বাহিনীতে আপনি সরাসরি পাবেন না উল্লেখ করে শওকত হোসেন বলেন, পুলিশ বিদেশেও অনেক প্রশংসনীয় কাজ করছে। সরকারি দ্বায়িত্ব পালন ছাড়াও পুলিশ মানুষের ঘরে গিয়ে খাবার পৌছে দিচ্ছে। মানুষের সেবায় পুলিশ কি না করছে এমন প্রশ্ন ছুড়ে দেন শওকত হোসেন।

সিএমপির কমিশনার জনাব মাহাবুবুর রহমানের মানুষের কল্যাণে নিরলস প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে শওকত হোসেন বলেন, মানবতার সেবায় তার বিভিন্ন নির্দেশনা আমাদের কাজে গতি বৃদ্ধি পাই।

শওকত হোসেন, মানবিক সহায়তায় সামান্য হলেও অসহায় দুস্ত মানুষের উপকার করতে সব শ্রেনী পেশার মানুষদের সাধ্যমত এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে বলেন, অন্তত একদিনের বেতন দিয়ে হলেও মানবতার সেবায় আসুন। এ সময় তিনি চলমান করোনা কালের নিরাপদে থাকার জন্য নিয়মিত স্বাস্থবিধি মেনে চলার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com
  চোর বাটপারদেরও প্রচুর মেধা কিন্তু রাষ্ট্রের জন্য অকল্যাণকর:বিএমপি কমিশনার   করোনার মাঝেও বিনোদন কেন্দ্র গুলোতে দর্শনার্থীদের ভিড়   ঈদে বিজিবিকে মিষ্টি খাওয়াল বিএসএফ   মানুষের উন্নত জীবনের জন্য কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী   ছাগলের চামড়া ৫ টাকা!   সিটি মেয়রের নির্দেশনায় সন্ধ্যার মধ্যেই বর্জ্য মুক্ত বরিশাল   সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ঈদ উদযাপন করলেন বরিশালের ডিসি   বরিশালে ঈদের দিন রান্না করা খাবার বিতরণ করলেন পারভেজ আকন বিপ্লব   বরিশালে মাত্র ৬ জনের শরীরে করোনা!   প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যময় চাঁদপাশা হাইস্কুল ও কলেজে অনলাইনে ভর্তি শুরু হচ্ছে   রাতের আধাঁরে কর্মহীন মানুষের দ্বারে দ্বারে ঈদ উপহার নিয়ে ডিসি খাইরুল দম্পতি!   কর্ম ও মানবসেবায় আলোকিতো পুলিশ অফিসার বাউফলের এবিএম ফারুক হোসেন   গোপালগঞ্জে ১০ গ্রাম প্লাবিত   হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেলেন ডা. জাফরুল্লাহ   পশুত্ব বিসর্জন দিয়ে তাকওয়া অর্জনই কোরবানির শিক্ষা   এলাকায় যাচ্ছেন না বেশির ভাগ নেতা   বরিশালবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জাপা`র যুগ্ন-মহাসচিব ইকবাল হোসেন তাপস   সাগরে বড় সাইজের প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে   জনগণের কল্যাণে আজীবন কাজ করে যেতে চান এমপি পংকজ নাথ   নাচোলে বিপুল পরিমান ভারতীয় বিড়িসহ পাঁচ শীর্ষ চোরাকারবারী গ্রেপ্তার