দৈনিক বরিশাল ২৪টুং-টাং শব্দেমুখর বরিশালের কামারপল্লী | দৈনিক বরিশাল ২৪

প্রকাশিতঃ জুলাই ২১, ২০২০ ৪:৫৬ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

টুং-টাং শব্দেমুখর বরিশালের কামারপল্লী

শামীম আহমেদ: করোনা ভাইরাসের মধ্যেও টুং-টাং শব্দে মুখর হয়ে উঠেছে বরিশাল নগরের হাটখোলা কামারপল­ী। দিন রাত ব্যস্থ সময় পার করছেন অনেক কামাররা। কোরবানীর ঈদ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে বাড়ছে তাদের কাজের ব্যস্থতা। তবে বিশ্ব জুড়ে মহামারী করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে থমকে আছে দেশ ।

তারপরেও প্রতিবারের তুলনায় এবছর কামারপল­ীতে কাজের চাপ অনেকটা কম দেখা গেছে। নতুন চাপাতি, ছুরি তৈরির পাশাপাশি চলছে পুরনো অস্ত্রে শান দেওয়ার কাজ।

বরিশাল নগরের হাটখোলা, নতুনবাজার, বাংলাবজার, নথুল­াবাদ, চাঁদমারী,পলাশপুর বৌ-বাজার, বেলতলা, তালতলী বাজার, সদর উপজেলার চরকাউয়া, সাহেবেরহাট, লাহারহাট, কাশিপুর বাজার, কড়াপুর বৌসের হাটসহ ছোট-বড় সব হাটের কামাররা এখন একটু ব্যস্ত সময় পার করছেন।

ভোর থেকে শুরু করে কাজ চলছে রাত পর্যন্ত। পলাশপুর বৌ-বাজারের আমল কর্মকার বলেন, ‘ঈদের আগে
কাজে চাহিদা বেড়ে গেছে। তবে প্রতিবারের চেয়ে এবছর করোনার কারনে কাজের চাপ অনেক কম। এজন্য বর্তমানে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কাজ করছি।

আগে খুব সকালে দোকানে আসতাম আর বাড়ি যেতাম গভীর রাতে। এখন তারাতারি কাজ শেষ করে বাসায় চলে যাই। গড়ে প্রতিদিন ২০ থেকে ৩০টি কাজ করে হাজার দেড়েক টাকা আয় হচ্ছে ২/৩ দিন ধরে। আগে এর চেয়ে বেশি আয় হতো।

তিনি আরো বলেন, একটি বড় দা পাঁচ কেজির লোহা দিয়ে তৈরি করে মজুরিসহ ৮০০ টাকা, এক কেজি ওজনের কুড়াল ৩ শ’ থেকে সাড়ে ৩শ’ টাকা, চাপাতি প্রকার ভেদে ৪৫০ টাকা থেকে ৬০০ টাকা, বিভিন্ন আকারের ছোরা ৩৫০ টাকা থেকে ৬৫০ টাকা করে নিচ্ছেন তারা। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, অন্য সময়ের চেয়ে এখন চাপাতি, চাকু, ছুরির দাম বেশি রাখা হচ্ছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, নগরের কামারপট্টির কামারদের এখন কাজের চাপ কিছুটা বেশি। একের পর এক ক্রেতা এসে দোকানে ভিড় করছেন আগে বর্তমানে একটু কম। তার পরও দোকান ছেড়ে যাওয়ারও কোন উপায় নেই। তাই সকাল, দুপুর খাবার তারা দোকানে বসেই সেরে নিচ্ছেন।

পুরনো দুইটি দা, একটি বটি ও একটি ছুরিতে শান দেয়ার জন্য ৩৫০ টাকা নিচ্ছেন। অন্য সময় মজুরি ছিল ১৫০ টাকা। আর নতুন একটি ছোরা ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকা, বিভিন্ন সাইজের চাকুু ৫০ থেকে ১০০ টাকা, বটি ২০০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি করছেন। হাটখোলার সঞ্জয় কর্মকার বলেন, ‘সারাবছরই আমাদের তৈরি জিনিসের কমবেশি চাহিদা থাকে।

তবে ঈদে পশু কোরবানীর জন্য নতুন ছুরি, চাপাতি, চাক্কুর কদর প্রতি বছরই বেড়ে যায়। কিন্তু এবছর করোনার কারনে তাই চাহিদার কম। তার পরেও কিছু তৈরি করে রাখছি। কড়াপুর হাটের অজয় কর্মকার
বলেন, ‘আগে অন্য হাট-বাজারে প্রতিদিন বিভিন্ন লৌহজাত জিনিস বানিয়ে ৫৫০ থেকে ৭০০ টাকা রোজগার হতো।

তবে ঈদের আগে লোহার অস্ত্রের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এখন প্রতিদিন এক হাজার ১হাজার টাকা থেকে ১২ টাকা আয় হচ্ছে। ঈদের চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ করতে এবছর সময় কম লাগছে।

এবছর আমি নতুন কাজের অর্ডার নেয়া বন্ধ করেনি। গতবছর এসময় অর্ডার নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলাম । এবছর তা উল্টো। তবে ব্যস্ততা থাকবে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত।

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

টুং-টাং শব্দেমুখর বরিশালের কামারপল্লী

মঙ্গলবার, জুলাই ২১, ২০২০ ৪:৫৬ অপরাহ্ণ

শামীম আহমেদ: করোনা ভাইরাসের মধ্যেও টুং-টাং শব্দে মুখর হয়ে উঠেছে বরিশাল নগরের হাটখোলা কামারপল­ী। দিন রাত ব্যস্থ সময় পার করছেন অনেক কামাররা। কোরবানীর ঈদ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে বাড়ছে তাদের কাজের ব্যস্থতা। তবে বিশ্ব জুড়ে মহামারী করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে থমকে আছে দেশ ।

তারপরেও প্রতিবারের তুলনায় এবছর কামারপল­ীতে কাজের চাপ অনেকটা কম দেখা গেছে। নতুন চাপাতি, ছুরি তৈরির পাশাপাশি চলছে পুরনো অস্ত্রে শান দেওয়ার কাজ।

বরিশাল নগরের হাটখোলা, নতুনবাজার, বাংলাবজার, নথুল­াবাদ, চাঁদমারী,পলাশপুর বৌ-বাজার, বেলতলা, তালতলী বাজার, সদর উপজেলার চরকাউয়া, সাহেবেরহাট, লাহারহাট, কাশিপুর বাজার, কড়াপুর বৌসের হাটসহ ছোট-বড় সব হাটের কামাররা এখন একটু ব্যস্ত সময় পার করছেন।

ভোর থেকে শুরু করে কাজ চলছে রাত পর্যন্ত। পলাশপুর বৌ-বাজারের আমল কর্মকার বলেন, ‘ঈদের আগে
কাজে চাহিদা বেড়ে গেছে। তবে প্রতিবারের চেয়ে এবছর করোনার কারনে কাজের চাপ অনেক কম। এজন্য বর্তমানে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কাজ করছি।

আগে খুব সকালে দোকানে আসতাম আর বাড়ি যেতাম গভীর রাতে। এখন তারাতারি কাজ শেষ করে বাসায় চলে যাই। গড়ে প্রতিদিন ২০ থেকে ৩০টি কাজ করে হাজার দেড়েক টাকা আয় হচ্ছে ২/৩ দিন ধরে। আগে এর চেয়ে বেশি আয় হতো।

তিনি আরো বলেন, একটি বড় দা পাঁচ কেজির লোহা দিয়ে তৈরি করে মজুরিসহ ৮০০ টাকা, এক কেজি ওজনের কুড়াল ৩ শ’ থেকে সাড়ে ৩শ’ টাকা, চাপাতি প্রকার ভেদে ৪৫০ টাকা থেকে ৬০০ টাকা, বিভিন্ন আকারের ছোরা ৩৫০ টাকা থেকে ৬৫০ টাকা করে নিচ্ছেন তারা। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, অন্য সময়ের চেয়ে এখন চাপাতি, চাকু, ছুরির দাম বেশি রাখা হচ্ছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, নগরের কামারপট্টির কামারদের এখন কাজের চাপ কিছুটা বেশি। একের পর এক ক্রেতা এসে দোকানে ভিড় করছেন আগে বর্তমানে একটু কম। তার পরও দোকান ছেড়ে যাওয়ারও কোন উপায় নেই। তাই সকাল, দুপুর খাবার তারা দোকানে বসেই সেরে নিচ্ছেন।

পুরনো দুইটি দা, একটি বটি ও একটি ছুরিতে শান দেয়ার জন্য ৩৫০ টাকা নিচ্ছেন। অন্য সময় মজুরি ছিল ১৫০ টাকা। আর নতুন একটি ছোরা ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকা, বিভিন্ন সাইজের চাকুু ৫০ থেকে ১০০ টাকা, বটি ২০০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি করছেন। হাটখোলার সঞ্জয় কর্মকার বলেন, ‘সারাবছরই আমাদের তৈরি জিনিসের কমবেশি চাহিদা থাকে।

তবে ঈদে পশু কোরবানীর জন্য নতুন ছুরি, চাপাতি, চাক্কুর কদর প্রতি বছরই বেড়ে যায়। কিন্তু এবছর করোনার কারনে তাই চাহিদার কম। তার পরেও কিছু তৈরি করে রাখছি। কড়াপুর হাটের অজয় কর্মকার
বলেন, ‘আগে অন্য হাট-বাজারে প্রতিদিন বিভিন্ন লৌহজাত জিনিস বানিয়ে ৫৫০ থেকে ৭০০ টাকা রোজগার হতো।

তবে ঈদের আগে লোহার অস্ত্রের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এখন প্রতিদিন এক হাজার ১হাজার টাকা থেকে ১২ টাকা আয় হচ্ছে। ঈদের চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ করতে এবছর সময় কম লাগছে।

এবছর আমি নতুন কাজের অর্ডার নেয়া বন্ধ করেনি। গতবছর এসময় অর্ডার নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলাম । এবছর তা উল্টো। তবে ব্যস্ততা থাকবে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত।

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com
  চোর বাটপারদেরও প্রচুর মেধা কিন্তু রাষ্ট্রের জন্য অকল্যাণকর:বিএমপি কমিশনার   করোনার মাঝেও বিনোদন কেন্দ্র গুলোতে দর্শনার্থীদের ভিড়   ঈদে বিজিবিকে মিষ্টি খাওয়াল বিএসএফ   মানুষের উন্নত জীবনের জন্য কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী   ছাগলের চামড়া ৫ টাকা!   সিটি মেয়রের নির্দেশনায় সন্ধ্যার মধ্যেই বর্জ্য মুক্ত বরিশাল   সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ঈদ উদযাপন করলেন বরিশালের ডিসি   বরিশালে ঈদের দিন রান্না করা খাবার বিতরণ করলেন পারভেজ আকন বিপ্লব   বরিশালে মাত্র ৬ জনের শরীরে করোনা!   প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যময় চাঁদপাশা হাইস্কুল ও কলেজে অনলাইনে ভর্তি শুরু হচ্ছে   রাতের আধাঁরে কর্মহীন মানুষের দ্বারে দ্বারে ঈদ উপহার নিয়ে ডিসি খাইরুল দম্পতি!   কর্ম ও মানবসেবায় আলোকিতো পুলিশ অফিসার বাউফলের এবিএম ফারুক হোসেন   গোপালগঞ্জে ১০ গ্রাম প্লাবিত   হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেলেন ডা. জাফরুল্লাহ   পশুত্ব বিসর্জন দিয়ে তাকওয়া অর্জনই কোরবানির শিক্ষা   এলাকায় যাচ্ছেন না বেশির ভাগ নেতা   বরিশালবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জাপা`র যুগ্ন-মহাসচিব ইকবাল হোসেন তাপস   সাগরে বড় সাইজের প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে   জনগণের কল্যাণে আজীবন কাজ করে যেতে চান এমপি পংকজ নাথ   নাচোলে বিপুল পরিমান ভারতীয় বিড়িসহ পাঁচ শীর্ষ চোরাকারবারী গ্রেপ্তার