দৈনিক বরিশাল ২৪বন্ধ দোকানের বাথরুমে পাওয়া গেলো ১৫ জন ক্রেতা | দৈনিক বরিশাল ২৪

প্রকাশিতঃ মে ১৯, ২০২০ ৫:২৭ অপরাহ্ণ
A- A A+ Print

বন্ধ দোকানের বাথরুমে পাওয়া গেলো ১৫ জন ক্রেতা

শামীম আহমেদ: বরিশালে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস নগরবাশীকে মুক্ত ও সুস্থ রাখার জন্য নগরীর সবচেয়ে বাণিজ্যিক এলাকা চকবাজার গ্রিজ্জামহল­া, কাটপট্রি ও বাজার রোড সহ বিভিন্ন এলাকার দ্বীতিয় বারের মত সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষনা করার পরও ঈদ আনন্দ উপভোগকারী বিলাশিতা মহিলা ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সতর্কবার্তা,অর্থ জরিমানা করার পরও এদের লাগাম টেনে ধরে রাখতে পারছেনা জেলা প্রাশসক।

জেলা প্রশাসকের কঠোর নির্দেশকে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে চকবাজারের ব্যবসায়ীরা খেলছেন চোর-পুলিশ খেলা। অন্যদিকে ঈদের মার্কেট করতে আসা পুরুষ ক্রেতাদের চেয়ে বেপরোয়া মহিলা ক্রেতাগণ তাদেরকে কোনভাবেই আটকাতে পারছেনা মোবাইল কোর্টের ম্যাজিস্ট্রেটরা বাহিরে আসার কারন জানতে চাইলে দেখাচ্ছেন তারা নানা অজুহাত।

আজ মঙ্গলবার থেকে নগরীর সকল মার্কেট পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষনা করার পরও সকাল থেকে নগরীর চকবাজার, পদ্ধাবতী কাটপট্রি,গ্রিজ্জা মহল­া ও ফজলুল হক এ্যাভিনিয় এলাকার হাজি মহসিন মার্কেটে বিগত দিনের মত ভীড় দেখা যায় চোখে পড়ার মত।

অণ্যদিকে ব্যবসায়ীরা তাদের প্রতিষ্ঠানে ব্যবসার ধারন পাল্টিয়ে নতুন পদ্ধতিতে বেচা-বিক্রি করতে দেখা যায়। দোকানের সামনে প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের দাঁড় করিয়ে রেখে ক্রেতা ভিতরে পাঠিয়ে দিয়ে পুনরায় সামনের সাটার টেনে তালা ঝুলিয়ে দিচ্ছে।

এসময় তারা গণমাধ্যম কর্মী ও প্রশাসনের লোকজন দেখা মাত্রই দোকান বন্ধ রেখে সামনের সড়কে হাটা চলা করে ক্রেতাদের মত করে।

এসময় জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্টের ম্যজিষ্ট্রেট রুমানা আফরোজ চকবাজার এলাকায় বেশকিছু মহিলা ক্রেতা,মটর বাইকে ৩জন নিয়ে চলাচলের সময় তাদেরকে চরম সতর্কবার্তা প্রদান করেন।

এসময় তিনি হঠাৎ করে চকবাজারের নিউ বিশ্বশ্রী নামের একটি বন্ধ দোকানের সামনে এস অবস্থান নেয়। পরবর্তী দোকান মালিক নাটকিয়ভাবে এসে হাজির হলে তাকে দোকানের তারা খুলতে বলে সেসময় দোকান মালিক তালা খুলে ভিতরের সামনে কোন ক্রেতা পাওয়া না গেলেও দোকোনের শেষ প্রান্তে রয়েছে তালা মারা শাড়ির শোরুম এসময় দোকান মালিকের কাছে জানতে চাওয়া ওটা কিশের রুম তখন তারা বলেন বাথরুম তখন তাকে বাথরুরেমর তালা খুলতেই দেখা যায় শাড়ির শোরুম রয়েছে মহিলা-পুরুষ ও শিশু সহ ১৫ থেকে ২০ ক্রেতা এবং দেখা যায় তারা সকলেই কাপড়-শাড়ি ফোড়ক কিনে বসে আছে শুধু বেড় হয়ে যাবার অপেক্ষা।

মোবাইল কোর্টের ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে মিথ্যা কথার আশ্রয় নেয়ার অপরাধে তাৎক্ষনিক ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অপরদিকে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট নাজমুলহুদা একদল সেনা সদস্য ও র‌্যাব সদস্য নিয়ে নগরীর একধিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে বন্ধ ঘোষনার প্রথম দিনে জরিমানার চেয়ে মানবিক বিবেচনায় সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও সড়কে জনসমাগম শুণ্যের কোঠায় আনার জন্য মাইকিং করেন।

একই সময় একাধিকবার নিষেধ করার পরও দোকান খোলা রাখার অপরাধে নাজমুল হুদা কয়েকটি দোকান মালিককে জরিমানার আওতায় আনা হয়।

এ ব্যাপারে বরিশাল জেলা করোনা প্রতিদরোধ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আজ আবার হঠাৎ করে মার্কেট বন্ধ করার কারনে হয়ত অনেকে জানে না। সেকারনে আজকে তাদেরকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

এখনো যে কয়টাদিন আছে সেখানে প্রশাসনের পক্ষ থেকে শুধু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এখন থেকে পথচারী ও ক্রেতা সাধারনকে কঠোর আইনের আওতায় আনা হবে।

এমনকি আইন অমান্য করার অপরাধে তাদেরকে শাস্তি দেওয়া হতে পারে। ক্রেতাদের অবশ্যই বুঝতে হবে ঈদ পাওয়া যাবে কিন্তু তারা যদি করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়ে শুধু সে নয় তার গোটা পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে একথা তাদের বুঝতে হবে।ছবিঃফাইল ফটো

 বরিশাল ক্রাইম নিউজ ডট কম

বন্ধ দোকানের বাথরুমে পাওয়া গেলো ১৫ জন ক্রেতা

মঙ্গলবার, মে ১৯, ২০২০ ৫:২৭ অপরাহ্ণ

শামীম আহমেদ: বরিশালে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস নগরবাশীকে মুক্ত ও সুস্থ রাখার জন্য নগরীর সবচেয়ে বাণিজ্যিক এলাকা চকবাজার গ্রিজ্জামহল­া, কাটপট্রি ও বাজার রোড সহ বিভিন্ন এলাকার দ্বীতিয় বারের মত সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষনা করার পরও ঈদ আনন্দ উপভোগকারী বিলাশিতা মহিলা ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সতর্কবার্তা,অর্থ জরিমানা করার পরও এদের লাগাম টেনে ধরে রাখতে পারছেনা জেলা প্রাশসক।

জেলা প্রশাসকের কঠোর নির্দেশকে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে চকবাজারের ব্যবসায়ীরা খেলছেন চোর-পুলিশ খেলা। অন্যদিকে ঈদের মার্কেট করতে আসা পুরুষ ক্রেতাদের চেয়ে বেপরোয়া মহিলা ক্রেতাগণ তাদেরকে কোনভাবেই আটকাতে পারছেনা মোবাইল কোর্টের ম্যাজিস্ট্রেটরা বাহিরে আসার কারন জানতে চাইলে দেখাচ্ছেন তারা নানা অজুহাত।

আজ মঙ্গলবার থেকে নগরীর সকল মার্কেট পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষনা করার পরও সকাল থেকে নগরীর চকবাজার, পদ্ধাবতী কাটপট্রি,গ্রিজ্জা মহল­া ও ফজলুল হক এ্যাভিনিয় এলাকার হাজি মহসিন মার্কেটে বিগত দিনের মত ভীড় দেখা যায় চোখে পড়ার মত।

অণ্যদিকে ব্যবসায়ীরা তাদের প্রতিষ্ঠানে ব্যবসার ধারন পাল্টিয়ে নতুন পদ্ধতিতে বেচা-বিক্রি করতে দেখা যায়। দোকানের সামনে প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের দাঁড় করিয়ে রেখে ক্রেতা ভিতরে পাঠিয়ে দিয়ে পুনরায় সামনের সাটার টেনে তালা ঝুলিয়ে দিচ্ছে।

এসময় তারা গণমাধ্যম কর্মী ও প্রশাসনের লোকজন দেখা মাত্রই দোকান বন্ধ রেখে সামনের সড়কে হাটা চলা করে ক্রেতাদের মত করে।

এসময় জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্টের ম্যজিষ্ট্রেট রুমানা আফরোজ চকবাজার এলাকায় বেশকিছু মহিলা ক্রেতা,মটর বাইকে ৩জন নিয়ে চলাচলের সময় তাদেরকে চরম সতর্কবার্তা প্রদান করেন।

এসময় তিনি হঠাৎ করে চকবাজারের নিউ বিশ্বশ্রী নামের একটি বন্ধ দোকানের সামনে এস অবস্থান নেয়। পরবর্তী দোকান মালিক নাটকিয়ভাবে এসে হাজির হলে তাকে দোকানের তারা খুলতে বলে সেসময় দোকান মালিক তালা খুলে ভিতরের সামনে কোন ক্রেতা পাওয়া না গেলেও দোকোনের শেষ প্রান্তে রয়েছে তালা মারা শাড়ির শোরুম এসময় দোকান মালিকের কাছে জানতে চাওয়া ওটা কিশের রুম তখন তারা বলেন বাথরুম তখন তাকে বাথরুরেমর তালা খুলতেই দেখা যায় শাড়ির শোরুম রয়েছে মহিলা-পুরুষ ও শিশু সহ ১৫ থেকে ২০ ক্রেতা এবং দেখা যায় তারা সকলেই কাপড়-শাড়ি ফোড়ক কিনে বসে আছে শুধু বেড় হয়ে যাবার অপেক্ষা।

মোবাইল কোর্টের ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে মিথ্যা কথার আশ্রয় নেয়ার অপরাধে তাৎক্ষনিক ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অপরদিকে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট নাজমুলহুদা একদল সেনা সদস্য ও র‌্যাব সদস্য নিয়ে নগরীর একধিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে বন্ধ ঘোষনার প্রথম দিনে জরিমানার চেয়ে মানবিক বিবেচনায় সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও সড়কে জনসমাগম শুণ্যের কোঠায় আনার জন্য মাইকিং করেন।

একই সময় একাধিকবার নিষেধ করার পরও দোকান খোলা রাখার অপরাধে নাজমুল হুদা কয়েকটি দোকান মালিককে জরিমানার আওতায় আনা হয়।

এ ব্যাপারে বরিশাল জেলা করোনা প্রতিদরোধ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আজ আবার হঠাৎ করে মার্কেট বন্ধ করার কারনে হয়ত অনেকে জানে না। সেকারনে আজকে তাদেরকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

এখনো যে কয়টাদিন আছে সেখানে প্রশাসনের পক্ষ থেকে শুধু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এখন থেকে পথচারী ও ক্রেতা সাধারনকে কঠোর আইনের আওতায় আনা হবে।

এমনকি আইন অমান্য করার অপরাধে তাদেরকে শাস্তি দেওয়া হতে পারে। ক্রেতাদের অবশ্যই বুঝতে হবে ঈদ পাওয়া যাবে কিন্তু তারা যদি করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়ে শুধু সে নয় তার গোটা পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে একথা তাদের বুঝতে হবে।ছবিঃফাইল ফটো

সম্পাদক ও প্রকাশক : খন্দকার রাকিব ।
ফকির বাড়ি, ৫৫৪৫৪ বরিশাল।
মোবাইল: ০১৭২২৩৩৬০২১
ইমেইল : rakibulbsl@gmail.com, barisalcrimenews@gmail.com
  ৩৬ বছরের বঞ্চনার অবসান,জাতীয়করণ হচ্ছে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা   করোনাভাইরাস : প্রধানমন্ত্রীর পাঁচ নির্দেশনা   বরিশালে করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃতের সৎকারে ইউপি চেয়ারম্যান সৈকত গুহ   নবীগঞ্জে চেয়ারম্যানের উপর হামলার অভিযোগে মামলা   ভারতের মহারাষ্ট্র উপকূলে প্রবল বেগে আছড়ে পড়ল ‘নিসর্গ’   নড়াইল জেলা অনলাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্বোধন   করোনার দুর্দিনে মানুষের পাশে উখিয়া ইউএনও, বন্ধ থাকবে এনজিও কিস্তি   প্রায় ১০ লাখ পোশাক শ্রমিক করোনায় আক্রান্ত হবার ঝুঁকি নিয়েই কর্মস্থলে   ‘ইংরেজিতে ৩৩ পেয়ে পাস, পড়ছি বিশ্ববিদ্যালয়ে’   চাঁপাইনবাবগঞ্জে তিনটি কুরিয়ার সার্ভিসকে আম মৌসুম পরিচালনায় অনুমতি   নিষেধাজ্ঞা মানছেনা এনজিও কর্মিরা, বরিশালে কিস্তির চিন্তায় দিশেহারা মানুষ   কক্সবাজারে পর্যাপ্ত ভেন্টিলেটরের অভাব, বাড়তে পারে মৃত্যুর ঝুকি   করোনায় মারা গেলেন নবীগঞ্জের কৃতিসন্তান প্রখ্যাত ইউরোলজিস্ট মনজুর রশিদ   করোনা: দেশে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ২ হাজার ৯১১ জন,৩৭ জনের মৃত্যু   বরিশালে নাতীর হামলায় নানী নিহত   নড়াইল ছাত্রলীগের সাবেক দুই নেতার বিরুদ্ধে গনপূর্ত অফিস ভাংচুরের অভিযোগ   নবীগঞ্জে অবৈধ বালু উত্তোলন, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা   তালতলীতে আরো একজন করোনা আক্রান্ত, রুগী হতাশ   ২ মাস বন্ধ থাকার পর চালু হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামসজিদ স্থলবন্দর   মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় চালক ও সহকারী নিহত